ঘুম ভালো হতে যে ১০টি খাবারের তুলনা নাই।

স্বাস্থ্য ডেস্ক,অভয়নগরবার্তাঃ

ঘুম ভালো হতে যে ১০টি খাবারের তুলনা নাই।

ঘুম যদি ভালো হয় তাহলে মেজাজটা থাকে ফুরফুরে,শরীরও ভালো থাকে। আমরা যে খাবার খায় তা আমাদের মস্ত‌িষ্কের উপর একটা প্রভাব ফেলে। বেশ কিছু গবেষণায় প্রমাণিত হয়েছে রাতে বিছানায় যাওয়ার আগে আমরা যেসব খাবার খাই সেসব আমাদের ঘুমের গুনগত মানের ওপর সরাসরি প্রভাব ফেলে। এসব খাবার খেয়ে ঘুমাতে গেলে ওষুধ খেয়ে ঘুমানোর ফলে যে সাইড ইফেক্ট হওয়ার সম্ভাবনা থাকে তা থেকে বাঁচা যাবে।

আসুন জেনে নেওয়া যাক কোন খাবারগুলো ঘুমের গুনগত মান বাড়াতে সহায়ক ভুমিকা পালন করে।

১. সিরিয়াল বা শস্যদানা
শস্যদানা হতে পারে ঘুমের আগের একটি উৎকৃষ্ট জলখাবার। পূর্ণশস্য জাতীয় শস্যদানার সঙ্গে পাস্তুরিত দুধ খেলে প্রচুর পরিমাণে ক্যালসিয়াম এবং কার্বোহাইড্রেটস দেহে প্রবেশ করে। এই পুষ্টি উপাদানগুলো পাকস্থলির ওপর অতিরিক্ত চাপ না ফেলে ঘুমের গুনগত মান বাড়াতে সক্ষম। আর  সারা রাত ধরেই পেট ভরা থাকার অনুভূতিও এন দেয় এই খাবার।

২. কাজুবাদাম
এতে আছে ট্রিপটোফ্যান এবং ম্যাগনেশিয়াম। এই দুটি উপাদান প্রাকৃতিকভাবেই স্নায়ু এবং মাংসপেশির কার্যক্রম স্তিমিতি করে আনতে সহায়ক। যা বিশ্রামের জন্য জরুরি। এছাড়া ঘুমের সময় হৃদপিণ্ডকে দৃঢ় এবং মসৃণভাবে সচল রাখতেও সহায়ক এটি।

৩.স্প‌িনাক

ফোলেট, ম্যাগনেশিয়াম, বি৬ এবং সি এর মতো ভিটামিন ছাড়াও এতে আছে গ্লুটামিন নামের একটি অ্যামাইনো এসিড যা শান্তিপূর্ণ ঘুমের জন্য বেশ সহায়ক হিসেবে কাজ করে।

৪. পূর্ণ শস্য
গম ক্যাকার্স, বিন এবং পূর্ণ শস্য পাস্তার মতো পূর্ণ শস্যজাতীয় খাদ্য গভীর ঘুমে এনে দেয়। সেরোটোনিন এর মতো শিথিলকরণ হরমোনের নিঃসরণ বাড়িয়ে আপনাকে গভীর ঘুমে আচ্ছন্ন করে দিবে এসব খাবার। এছাড়া এসব খাবারে থাকা ম্যাগনেশিয়ামও দেহের মাংসপেশি শিথিলকরণে সহায়ক।

৫. কলা
এতে আছে পটাশিয়াম, ম্যাগনেশিয়াম এবং ট্রিপটোফিন। এই উপাদানগুলো সেরোটোনিন এর মতো ঘুমের হরমোন নিঃসরণে সহায়ক ভুমিকা পালন করে।

৬. মধু
মেলাটোনিন নিঃসরণ বাড়িয়ে এবং মস্তিষ্ককে জাগিয়ে রাখার হরমোন ওরেক্সিন এর নিঃসরণ কমিয়ে ঘুমের গুনগত মান বাড়ায় মধু। মাত্র ১ চামচ মধুতেই গভীর ঘুম নেমে আসবে দেহে।

৭. ওটস
সকালের খাবার হিসেবে পরিচিত এই খাবারটি রাতের বেলার জলখাবার হিসেবেও ভালো। এতে আছে জটিল কার্বোহাইড্রেটস যা খাবার হজমে বেশ সময় লাগায়। ফলে রাতভর পেট ভরা থাকার অনুভূতি থাকে এবং ঘুমের কোনো ব্যাঘাত ঘটে না। এছাড়া ঘুমের গুনগত মান বাড়াতে সহায়ক হরমোন সেরোটোনিন এবং মেলাটোনিন নিঃসরণেও সহায়ক এই খাবার।

৮. মিষ্টি আলু
ঘুমের গুনগত মান বাড়াতে মিষ্টি আলু প্রথম পছন্দ হওয়া উচিত। এতে শুধু ঘুম বাড়াতে সহায়ক জটিল কার্বোহাইড্রেটসই নয় বরং মাংসপেশি শিথিলকরনে সহায়ক পটাশিয়ামও আছে প্রচুর।

৯. গরম দুধ
রাতে শোয়ার আগে এক গ্লাস গরম দুধ খেলে ঘুমের গুনগত মান বাড়ে ব্যাপকহারে। কারণ দুধে আছে প্রচুর ক্যালসিয়াম যা মস্তিষ্ককে গভীর ঘুমের জন্য সহায়ক হরেমান মেলাটোনিন নিঃসরণে উৎসাহিত করে। দুধ খেলে প্রচুর পরিমাণে মেলাটোনিন নিঃসরিত হয় এবং গভীর ঘুম আসে।

১০. ডার্ক চকোলেট
এতে আছে সেরোটোনিন যা মন এবং দেহকে প্রশান্ত করতে সহায়ক। আর এর ফলে ঘুমও ভালো হয়।

তাহলে,আজ থেকেই এর কোনো একটি খাবার দিয়ে শুরু করুন।

Leave a Reply